মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কক্সবাজার জেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। কক্সবাজার জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের শহীদ এটিএম জাফর আলম সম্মেলন কক্ষে সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক মো: মামুনুর রশীদ প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেন।

কক্সবাজার জেলা নির্বাচন অফিসার ও কক্সবাজার জেলা পরিষদ নির্বাচনে সহকারী রিটার্নিং অফিসার এস.এম শাহাদাত হোসেন এ তথ্য জানিয়েছেন।

কক্সবাজার জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থীদের মধ্যে, আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী, কক্সবাজার জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোস্তাক আহমদ চৌধুরী-মটর সাইকেল, কক্সবাজার পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল আবছার-তালগাছ, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মরহুম এ.কে.এম মোজাম্মেল হক এর পুত্র শাহীনুল হক মার্শাল-আনারস এবং মঙ্গল পার্টির সভাপতি জগদীশ বড়ুয়া-প্রজাপতি প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন।

কক্সবাজার জেলা পরিষদ নির্বাচনে মোট ৯৯৪ জন ভোটার রয়েছে। তারমধ্যে ৭৫৯ জন পুরুষ ভোটার এবং ২৩৫ জন মহিলা ভোটার।

সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ড নম্বর ১ (টেকনাফ-উখিয়া-রামু)-আশরায়ফ জাহান কাজল-দোয়াত কলম, তছলিমা আকতার রোমানা-টেবিল ঘড়ি এবং তসলিমা আকতার-ফুটবল প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন। এ ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা ৩০৬ জন।

সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ড নম্বর ২ (সদর-মহেশখালী-ঈদগাহ) তে-চম্পা উদ্দিন-টেবিল ঘড়ি, মশরফা জান্নাত-বই, ছালেহা আকতার-ফুটবল এবং হুমায়রা বেগম-হরিণ প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন। এ ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা ২৬৪ জন।

সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ড নম্বর ৩ (চকরিয়া-পেকুয়া-কুতুবদিয়া) এ আসমা উল হোসনা-টেবিল ঘড়ি, তানিয়া আফরিন-দোয়াত কলম, রেহেনা খানম-ফুটবল এবং হুমাইরা বেগম-বই প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন। এ ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা ৪২৪ জন।

নির্বাচনে ৯ টি সাধারণ ওয়ার্ডের মধ্যে, ১ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড টেকনাফ উপজেলায় জাফর আহমদ-তালা এবং মোহাম্মদ শফিক মিয়া টিউবওয়েল প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন। এ ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা ৯৩ জন।

২ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড, উখিয়া উপজেলায় আবুল মনসুর চৌধুরী-টিউবওয়েল এবং হুমায়ুন কবির চৌধুরী-তালা প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন। এ ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা ৬৮ জন।

৩ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড, কক্সবাজার সদর উপজেলায় রুহুল আমিন সিকদার-অটোরিক্সা (সিএনজি), মাহমুদুল করিম-হাতি এবং তাহমিনা নুসরাত জাহান লুনা-তালা প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন। এ ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা ৮২ জন।

৪ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড, রামু উপজেলায়-ফরিদুল আলম-হাতি, শামশুল আলম মন্ডল-তালা, মোস্তাক আহমদ-অটোরিক্সা (সিএনজি), নুরুল আবছার-ঘড়ি, মোঃ মনজুরুল মোর্শেদ কাদেরী-বৈদ্যুতিক পাখা এবং মোঃ আবদুল মজিদ-টিউবওয়েল প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন। এ ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা ১৪৫ জন।

৫ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড, ঈদগাহ উপজেলায় মোঃ আরিফুল ইসলাম একমাত্র প্রার্থী হিসাবে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। এ ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা ৬৫ জন।

৬ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড, চকরিয়া উপজেলায় সোলতান আহমদ-ঘুড়ি, মুহাম্মদ ফয়সাল-হতি, আবু তৈয়ব-টিউবওয়েল, জাহাঙ্গীর আলম-তালা, এটিএম জিয়া উদ্দিন চৌধুরী জিয়া-বৈদ্যুতিক পাখা প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন। এ ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা ২৪৯ জন।

৭ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড, পেকুয়ায়-মোঃ আবদুল হামিদ-ক্রিকেট ব্যাট, মোঃ জয়নাল আবেদীন-হাতি, সোলতান মোহাম্মদ রিপন-ঢোল, মোহাম্মদ শওকত হোসেন-তালা, নুরুল আবছার-বৈদ্যুতিক পাখা, সেলিনা আকতার-উটপাখি এবং মোহাম্মদ আজমগীর-টিউবওয়েল প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন। এ ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা ৯৪ জন।

৮ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড, মহেশখালী উপজেলায়-শহীদুল ইসলাম মুন্না-হাতি, এম. আজিজুর রহমান-তালা এবং মোঃ সাইফুল কাদির-টিউবওয়েল প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন। এ ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা ১১৭ জন।

৯ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড, কুতুবদিয়া উপজেলায় কপিল উদ্দিন-তালা, আবু জাফর ছিদ্দিকী-হাতি, ছরওয়ার আলম সিকদার-ঘুড়ি এবং নুরুল ইসলাম-টিউবওয়েল প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন। এ ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা ৮১ জন।

আগামী ১৭ অক্টোবর সোমবার সকাল ৯ টা থেকে দুপুর ২ টা পর্যন্ত ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ করা হবে।

নির্বাচনে কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মো: মামুনুর রশীদ রিটার্নিং অফিসার, কক্সবাজার জেলা নির্বাচন অফিসার এস.এম শাহাদাত হোসেন এবং কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসার শিমুল শর্মা-কে সহকারী রিটার্নিং অফিসার হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন।