হাফেজ মুহাম্মদ আবুল মঞ্জুর

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোঃ জাকির হোসেন বলেছেন, আমাদের মূল লক্ষ্য হচ্ছে জনগণের কল্যাণে কাজ করা। মাদ্রাসায় যারা অধ্যয়ন করে তাদের মাঝে অনেক সুপ্ত প্রতিভা রয়েছে; সে প্রতিভা কাজে লাগিয়ে তারাও সমাজের বহুমুখী সেবায় আত্মনিয়োগ করতে পারে।

২৩ সেপ্টেম্বর রামু রাজারকুল আজিজুল উলুম মাদ্রাসা ও এতিমখানা পরিদর্শনকালে সংবর্ধনার জবাবে মোঃ জাকির হোসেন এসব কথা বলেন।

দেশব্যাপী চার বছরে এক কোটি খেজুর গাছ রোপণ কর্মসূচির অংশ হিসেবে তিনি এ মাদ্রাসায় আগমন করেন। এ উপলক্ষে মাদ্রাসার পক্ষ থেকে তাঁর সম্মানে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা মোহাম্মদ মোহছেন শরীফ তাঁকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করেন।
পরিচালক মাওলানা মোহাম্মদ মোহছেন শরীফের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সংবর্ধনা সভায় তিনি আরও বলেন, খেজুর গাছের শিকড় মাটির অনেক গভীরে চলে যায় এবং প্রচুর মাটি ধরে রাখে। তাই দেশব্যাপী রাস্তার দু’পাশে এবং সাগর ও নদী তীরে খেজুর গাছ রোপণের মাধ্যমে রাস্তা ও নদীর ভাঙ্গন অনেকটা রোধ করা সম্ভব।

এসময় সংবর্ধিত অতিথি অতিরিক্ত সচিব মোঃ জাকির হোসেন মাদ্রাসার সুষ্ঠু পরিচালনা, পাঠদান কার্যক্রম ও মনোরম পরিবেশে দেখে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন এবং মাদ্রাসার পরিদর্শন বইয়ে নিজের সুন্দর অভিব্যক্তি তুলে ধরেন।

সূচনা বক্তব্যে মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা মোহাম্মদ মোহছেন শরীফ বলেন, মাদ্রাসায় বর্তমানে ৭৫০ জন শিক্ষার্থী বিভিন্ন বিভাগে দ্বীনি ও যুগোপযোগী শিক্ষা গ্রহণ করছে। দ্বীনি শিক্ষার পাশাপাশি নির্দিষ্ট বিভাগের তত্ত্বাবধানে সেমিনার, সংলাপ, প্রতিযোগিতা ও বিভিন্ন সাংস্কৃতিক বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে তাদেরকে বহুমুখী যোগ্যতাসম্পন্ন করে গড়ে তোলা হচ্ছে।
তিনি বলেন, অত্র মাদ্রাসায় রয়েছে জেলার সবচেয়ে সমৃদ্ধ গ্রন্থাগার। যেখান থেকে মাদ্রাসার সকল শিক্ষার্থীদেরকে বিনামূল্যে কিতাব ও পাঠ্য বই সরবরাহ করা হয়।
এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, কক্সবাজার উন্নয়ন ফোরামের সভাপতি আ ন ম হেলাল উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আ. হ. ম আনওয়ারুল হক, বাংলাদেশ ব্যাংকের বিশিষ্ট ব্যাংকার মাইমুনুর রশিদ, রাজারকুল ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শহীদুল্লাহ সিকদার ও বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী মাহফুজুর রহমান ছিদ্দিকী।

মাদ্রাসার সিনিয়র শিক্ষক মুফতি দেলোয়ার হোছাইনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে পবিত্র কুরআন তিলাওয়াত করেন, মাদ্রাসার হিফজ বিভাগের শিক্ষার্থী হাফেজ মুহাম্মদ দেশাত্মবোধক সঙ্গীত পরিবেশন করেন, ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্র হাফেজ মাশুকুর রহমান। অনুষ্ঠানে মাদ্রাসার শিক্ষকবৃন্দ ও শিক্ষার্থীগণ উপস্থিত ছিলেন।