সংবাদ বিজ্ঞপ্তি
উপমহাদেশের ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির আমীর আল্লামা সরওয়ার কামাল আজিজী বলেছেন, আজ দেশ ও জাতি চরম ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। ইসলাম ও মুসলিম উম্মাহর বিরুদ্ধে চলছে বিশ্বময় গভীর চক্রান্ত। এমন কঠিন সঙ্কট উত্তরণে ঈমানদীপ্ত চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে নেজামে ইসলাম নেতা-কর্মীদের অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। রুখে দাঁড়াতে হবে ইসলাম ও দেশ বিরোধী সকল ষড়যন্ত্র।
তিনি কক্সবাজার জেলা নেজামে ইসলাম পার্টির কাউন্সিল অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন।
২৫ আগষ্ট (বৃহস্পতিবার) বিকাল ৩ টায় সাগরতীরের হোটেল মিশুক সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত কাউন্সিল অধিবেশনে আল্লামা সরওয়ার কামাল আজিজী আরও বলেন, উপমহাদেশকে বৃটিশ বেনিয়াদের কবল থেকে মুক্ত করার লক্ষ্যে আযাদী আন্দোলনে নেতৃত্বদানকারী শীর্ষ ওলামায়েকেরামের স্মৃতিবিজড়িত সংগঠনই নেজামে ইসলাম পার্টি। প্রতিষ্ঠাকাল থেকে এ সংগঠন ইসলামী নেজামে ইসলাম প্রতিষ্ঠার সংগ্রাম, দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব রক্ষাসহ জনকল্যাণমুখী বিভিন্ন ইস্যুতে কৃতিত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে চলেছে।
সংগঠনের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর ও কক্সবাজার জেলা আমীর মাওলানা হাফেজ ছালামতুল্লাহর সভাপতিত্বে এ কাউন্সিল অধিবেশনে বিশেষ অতিথি ছিলেন, কেন্দ্রীয় সিনিয়র নায়েবে আমীর মাওলানা আব্দুল মাজেদ আতহারী। তিনি বলেন, নেজামে ইসলাম পার্টি কীর্তিমান বুযুর্গানেদ্বীন ও বিদগ্ধ ওলামা- মশায়েখের ইখলাস ও তাকওয়ার ভিত্তিতে প্রতিষ্ঠিত একটি স্বতন্ত্রধারার ইসলামী রাজনৈতিক দল। নেজামে ইসলাম পার্টি কেবল একটি নাম নয়; এটি একটি বিপ্লব, একটি সমৃদ্ধ ইতিহাস। সংগ্রামী এ ঐতিহ্য ধারণ পূর্বক সাংগঠনিক কর্মতৎপরতা বেগবান করে ইসলামী বিপ্লবের পথে নবদিগন্ত উন্মোচন করতে হবে।
এ কাউন্সিল অধিবেশনে প্রধান বক্তা ছিলেন, পার্টির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মাওলানা মনজুরুল কাদের চৌধুরী। তিনি বলেন, ৫২ এর ভাষা আন্দোলন, ৫৪ সালের যুক্তফ্রন্টের নির্বাচন, সৈরাচারী আইয়ুব খান বিরোধী আন্দোলন, পশ্চিম পাকিস্তানীদের জুলুম-শোষনের অবসানে নিখিল পাকিস্তানের রাজধানী ঢাকায় স্থানান্তরের ঐতিহাসিক আন্দোলন ঐতিহ্যব্যাহী নেজামে ইসলাম পার্টির সংগ্রামী অবদানের স্মারক। এই ইতিহাস নবপ্রজন্মের সামনে তুলে ধরতে হবে।
এ কাউন্সিল অধিবেশনে বিশেষ অতিথি ছিলেন, পার্টির কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর আব্দুর রহমান চৌধুরী, মাওলানা আব্দুল খালেক নিজামী। বিশেষ বক্তা ছিলেন, পার্টির যুগ্ম-মহাসচিব মাওলানা ইলিয়াছ খান, সংগঠন সচিব মাওলানা আবু তাহের খান, প্রশিক্ষণ সচিব ও ময়মনসিংহ জেলা সেক্রেটারি মুফতি শরীফুর রহমান, ইসলামী ছাত্রসমাজের কেন্দ্রীয় সিনিয়র সহ-সভাপতি হাফেজ মুহাম্মদ আবুল মঞ্জুর।
জেলা ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাওলান আব্দুর রহমান জিহাদীর সঞ্চালনায় এ অধিবেশনে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, কক্সবাজার জেলার সিনিয়র নায়েবে আমীর মাওলানা আ.হ.ম নুরুল কবির হিলালী।
কাউন্সিল অধিবেশনে বিশিষ্ট ওলামায়েকেরামের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, নেজামে ইসলাম নেতা, চকরিয়া বালাগুল মুবিন মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা মুফতি এনামুল হক, জামেয়া দারুচ্ছুন্নাহ হ্নীলার মুহতামিম মাওলানা আফসার উদ্দিন চৌধুরী, খতীবে আযম রহ. প্রতিষ্ঠিত চকরিয়া বরইতলী ফয়জুল উলুম মাদ্রাসার ভারপ্রাপ্ত পরিচালক মাওলানা ইব্রাহীম আজিজী, দায়িত্বশীলদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, কাউন্সিল বাস্তবায়ন কমিটির সমন্বয়ক মাওলানা ইয়াছিন হাবিব, রামু উপজেলা আমীর মাওলানা হাফেজ আব্দুর রহিম রাহী, জোয়ারিয়ানালা এমদাদুল উলুম মাদ্রাসার সিনিয়র শিক্ষক মাওলানা এজাজুল করিম শফী, উখিয়া দারুল হেদায়া মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা মুফতি রিদওয়ানুল কাদির।
এছাড়াও কাউন্সিল অধিবেশনে উপস্থিত ছিলেন, জেলা নায়েবে আমীর মাওলানা হোসাইন আহমদ, প্রবীণ নেতা মাওলানা গোলাম আকবর খান, চকরিয়া উপজেলা আমীর মাওলানা ফরিদুল হক, জেলা দায়িত্বশীল হাফেজ আমানুল হক আমান, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা মাহবুব উল্লাহ নোমানী, অর্থ সম্পাদক মাওলানা নুরুল হক চকোরী,শহর আমীর মাওলানা খালেদ সাইফী, রামু উপজেলা সাধারণ সম্পাদক মাওলানা শহীদুল্লাহ, যুগ্ম সম্পাদক হাফেজ আবু বকর ছিদ্দিক, চকরিয়া উপজেলা সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ডা. মঈন উদ্দিন গাজী, শহর নায়েবে আমীর মাওলানা হাফেজ জয়নাল আবেদীন, হাফেজ মুহাম্মদ সালেম, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা সাইফুল ইসলাম সাইফী, সাংগঠনিক মাওলানা মুফতি ইউছুফ মক্কী, জেলা ইসলামী ছাত্রসমাজের সভাপতি হাফেজ শওকত আলী, সহ-সভাপতি মুহাম্মদ আব্দুল হামিদ, সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ দিদারুল আলম, যুগ্ম-সম্পাদক মুহাম্মদ জায়নুল আবেদীন, সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মদ আতাউল্লাহ, রামু উপজেলা সভাপতি মুহাম্মদ আব্দুল করিম, সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ অলিউল্লাহ আরজু।
কাউন্সিল অধিবেশনে মাওলানা আবদুল খালেক নিজামীকে আমীর, মাওলানা আব্দুর রহমান জিহাদীকে সাধারণ সম্পাদক করে জেলা কমিটি ঘোষণা করা হয়।
শেষে নেজামে ইসলাম পার্টির মরহুম নেতৃবৃন্দের রুহের মাগফিরাতসহ সাংগঠনিক অগ্রযাত্রার সফলতা কামনায় বিশেষ মুনাজাত করা হয়।