নিজস্ব প্রতিবেদক:
কক্সবাজার সদরের ঝিলংজা ইউনিয়নের পূর্ব নয়াপাড়ায় বসতভিটা দখলে বাধা দেয়ায় এক পরিবারের সদস্যদের উপর নির্মম হামলা চালানো হয়েছে। এতে দুই নারীসহ তিনজন আহত হয়েছে।

হামলায় আহতরা হলেন, ওই এলাকার আবুল ফয়েজ, তার স্ত্রী সুমাইয়া নুর ও আবু ফয়েজের বোন আসমা আকতার।

গত ২৮ জুন এই ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় থানায় এজাহার জমা দিয়েছে ভুক্তভোগীরা।

থানায় দায়ের করা এজাহারে বলা হয়েছে, পূর্ব নয়াপাড়ার বশির আহমদের পুত্র আব্দুল মালেক দীর্ঘদিন ধরে আবুল ফয়েজের বসতভিটা দখলের অপচেষ্টা করে আসছিলো। এর অংশ ২৮ জুন আবু ফয়েজ ও তার পরিবারের লোকজন ঘুমিয়ে গেলে তাদের বসতভিটা দখলে দা, ছুরি, লোহার রড নিয়ে হামলা চালায় আবদুল মালেক ও তার ছেলেমেয়েরা। এসময় শুরুতে তারা অকথ্য ভাষায় গালি-গালাজ করে। হামলাকারীরা আবুল ফয়েজের বাড়ির বেড়া, টিনসহ সব কিছু কেটে ফেলে। টিনের চালে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করিয়া, ঘরের দুটি জানালার থাইগ্লাস, দরজার লক ভাংচুর করে। এক পর্যায়ে দরজা খুললে আবু ফয়েজকে টানা হেঁচড়া করে ঘর থেকে করে উঠানে ফেলে আবুল ফয়েজকে মাথায় কোপ মারে আবদুল মালেক। এছাড়া আবদুল মালেকের পুত্র জামাল উদ্দিন, আব্দুর রহমান ও মিনা আক্তার আবুল ফয়েজকে লোহার রড দিয়ে আঘাত করে।

তাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে তার বোন আসমা আকতারকেও কোপায় এবং স্ত্রী সুমাইয়া নুরকে মাটিতে ফেলে মারধর করে।

হামলাকারীরা ভাংচুর করে বহু টাকার ক্ষতি এবং স্বর্ণালংকারসহ অনেক জিনিষপত্র লুট করে নিয়ে যায়।
ভুক্তভোগীরা জানান, ঘটনার মামলা না করার জন্য হুমকি দিচ্ছে হামলাকারীরা। মামলা করলে হত্যা করবে বলে প্রকাশ্যে হুমকি দেয়া হচ্ছে।