নিজস্ব প্রতিবেদক:
কক্সবাজারের পেকুয়ায় রাজমিস্ত্রী কাজের পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে সন্ত্রাসী হামলায় ২ জন আহত হয়েছে। আহতদের কে উদ্ধার করে স্থানীয়রা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

৩০ মে সন্ধ্যা ৭ টায় উপজেলার শীলখালী ইউনিয়নের জারুলবুনিয়া পান বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

এসময় আহত হলেন জারুলবুনিয়া নিজ পাড়া এলাকার নজির আহমেদের পুত্র শহিদুল ইসলাম খোকন (৩০), উত্তর জুম এলাকার মৃত ছাবের আহমদের পুত্র নুরুল আবছার।

স্থানীয়রা ও আহতরা জানান, শহিদুল ইসলাম একজন নিমার্ণ শ্রমিক। তাকে জারুলবুনিয়া ঢালার মূখ এলাকার ফিরোজ আহম্মেদের পুত্র জাকের হোসেনের অধিনে সাতকানিয়া ঠাকুর ডি এলাকায় নিমার্ণ শ্রমিক হিসেবে কাজ করতে নিয়ে যায়। কয়েকদিন কাজ করার পর জাকের টাকা না দিলে শহিদ বাড়ীতে চলে আসে। জাকের বাড়ীতে চলে আসলে তার কাছ থেকে সেই কাজের পাওনা টাকা খুঁজে শহিদ। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। পরে তার মামা নুরুল আবচার কে ফোনে কল করে শহিদের মজুরির টাকা নিয়ে যেতে বলে। নুরুল আবচার ওই টাকা নিতে গেলে তাকে মারধর শুরু করে। খবর পেয়ে শহিদ তার মামাকে উদ্ধার করতে গেলে একই এলাকার জাকের, ফিরোজ আহম্মদের পুত্র জয়নাল, আকতার হোসেনের পুত্র বহদ আলী, শাহআলমের পুত্র নজরুল, মঞ্জুর আলমের পুত্র ইলিয়াসসহ বেশ কয়েকজন সন্ত্রাসী শহিদকে ধরে টানাহেঁচড়া করে লোহার রড ও কিরিস দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে গুরুত্বর জখম করে। এসময় সন্ত্রাসীরা তার কাছে থাকা নগদ ৫০ হাজার টাকা ও এন্ড্রয়েড একটি মোবাইল ফোন এবং তার মামার পকেটে থাকা নগদ ১৮ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। পরে তাদের চিৎকারে এলাকার লোকজন এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়।
এদিকে আহতের পিতা নজির আহমেদ হামলাকারীদের বিরুদ্ধে মামলা করবেন বলে জানান।

এ বিষয়ে পেকুয়া থানার ওসি (তদন্ত) কানন সরকার জানান এখনো কেউ লিখিত অভিযোগ দেয়নি অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।