ব্দুস সালাম, টেকনাফ:

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশে সারাদেশের ন্যায় কক্সবাজারের টেকনাফে অভিযান চালিয়ে অনিয়ম- অসঙ্গতির কারনে একটি হসপিটালসহ দু’টি ডায়াগনেস্টিক সেন্টারকে ১ লাখ টাকা জরিমানা এবং দুটি ল্যাবসহ একটি ভূয়া পল্লী চিকিৎসক কোর্স প্র‍তিষ্টানকে সীলগালা করে দিয়েছে মোবাইল কোর্ট।

সোমবার (৩০ মে) সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত টেকনাফ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রট মো. এরফানুল হক চৌধুরীর নেতৃত্বে টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়ন ও পৌরসভার এই যৌথ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. টিটু চন্দ্র শীল।

তিনি জানান, টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সর গেইট সংলগ্ন নাফ মেরিন সিটি হসপিটাল ও নাফ সীমান্ত প্যাথলজি এবং হ্নীলা ইউনিয়নের মুচনী সীমান্ত ল্যাবকে অব্যবস্থাপনা ও লোকবল সংকটের দায়ে প্রতিটিকে ৫০ হাজার টাকা করে মোট ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। এছাড়াও মেরিন সিটি হাসপাতালকে অনুমোদন সংক্রান্ত কাগজ পত্র ও লোকবল সংকট নিরসনে ২ মাসের সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে।

এছাড়া অপরদিকে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সংলগ্ন গেইটে নাফ ভিউ প্যাথলজি ও অনুমোদন বিহীন নাম সর্বস্ব একটি এলএমএফ কোর্স প্রতিষ্টানসহ হ্নীলা ইউনিয়নের লেদা হেলথ কেয়ার ডায়াগনেস্টিক সেন্টার নামের অনুমোদন বিহীন তিনটি প্রতিষ্টানকে সীলগালা করে দেয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এরফানুল হক চৌধুরী জানান- সময় সল্পতা ও লোকবল সংকটের কারনে আদালতের বেঁধে দেয়া সময়ের মধ্যে অভিযান শেষ করা যাচ্ছেনা। স্বাস্থ্য সেবার নামে ধান্ধাবাজি বন্ধ করতে এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এসময় টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. টিটু চন্দ্র শীল, মেডিকেল অফিসার ডা. এনামুল হক, স্যানেটারী ইন্সপেক্টর সোহরাব হোসেন ও টেকনাফ মডেল থানা পুলিশের এস আই নকিবুল্লাহ এর নেতৃত্বে একটি টিম উপিস্থিত ছিলেন।