আব্দুস সালাম,টেকনাফ(কক্সবাজার):
কক্সবাজারের টেকনাফে দু’টি পৃথক অভিযান চালিয়ে ৫কোটি ৩১ লক্ষাধিক টাকা মূল্যমানের ১ কেজি ৫৬ গ্রাম ক্রিস্টাল মেথ আইস, ৫০কেজি সুতার জাল ও ১৪৩ বোতল বার্মিজ মদ উদ্ধার করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

টেকনাফ ২বিজিবি ব্যাটালিয়ন এর অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল শেখ খালিদ মোহাম্মদ ইফতেখার গণমাধ্যমকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, বৃস্পতিবার (২৬ মে) ভোররাতে টেকনাফ ২ বিজিবি ব্যাটালিয়ন এর অধীনস্থ দমদমিয়া বিওপি’র দায়িত্বপূর্ণ বিআরএম-৯ হতে আনুমানিক ৯০০ মিটার দক্ষিণ-পূর্ব দিকে জালিয়ারদ্বীপ এলাকায় নিয়মিত চোরাচালান প্রতিরোধ টহল পরিচালনা করে। কিছুক্ষণ পর বিজিবি টহলদল দুইজন চোরাকারবারীকে একটি নৌকা যোগে নাফনদী পার হয়ে জালিয়ারদ্বীপের দিকে আসতে দেখে। টহলদল উক্ত চোরাকারবারীদের দেখা মাত্রই চ্যালেঞ্জ করে খুব দ্রুত তাদের দিকে অগ্রসর হয়। বিজিবি’র উপস্থিতি অনুধাবন করা মাত্রই উক্ত চোরাকারবারীরা নৌকা হতে লাফিয়ে সাঁতরিয়ে দ্রুত মিয়ানমারের অভ্যন্তরে পালিয়ে যায়। বিজিবি টহলদল স্পীডবোটের মাধ্যমে উক্ত নৌকাটিকে আটক করতে সক্ষম হয়। নৌকাটি পুঙ্খানুপুঙ্খুভাবে তল্লাশী করে নৌকা হতে ৫ কোটি ২৮ লক্ষ ৯০ হাজার টাকা মূল্যমানের ১ কেজি ৫৬ গ্রাম ক্রিস্টাল মেথ আইস এবং ৫০ কেজি সুতার জাল জব্দ করতে সক্ষম হয়। পরবর্তীতে চোরাকারবারীদের আটকের নিমিত্তে বর্ণিত এলাকা ও পার্শ্ববর্তী স্থানে সকাল পর্যন্ত অভিযান পরিচালনা করা হলেও তাদেরকে আটক করা সম্ভব হয়নি। তবে চোরাকারবারীদের আটকের নিমিত্তে অত্র ব্যাটালিয়নের গোয়েন্দা কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

এছাড়া অপরদিকে একইদিনে টেকনাফ ২বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধীনস্থ হোয়াইক্যং বিওপি’র একটি টহলদল বিআরএম-১৮ হতে আনুমানিক ২ কিঃ মিঃ উত্তর-পূর্ব কোণে খারাঙ্গাঘোনা নামক এলাকায় নাফ নদীর কিনারায় নিয়মিত টহল কার্যক্রম পরিচালনা করার সময়ে টহলদল দূর হতে দেখতে পায় যে, ৬/৭ জন ব্যক্তিকে বস্তা মাথায় করে নাফনদী পার হয়ে খারাঙ্গাঘোনা নামক এলাকা দিয়ে পার্শ্ববর্তী গ্রামের দিকে যাচ্ছে। পরবর্তীতে টহলদলের সন্দেহ হলে তাদেরকে চ্যালেঞ্জ ও ধাওয়া করে। চোরাকারবারীরা বিজিবি’র উপস্থিতি লক্ষ্য করা মাত্রই তাদের মাথায় থাকা বস্তাগুলো ফেলে দিয়ে দ্রুত পার্শ্ববর্তী গ্রামের দিকে পালিয়ে যায়। টহলদল উল্লেখিত স্থানে পৌঁছে তল্লাশী অভিযান পরিচালনা করে ২ লক্ষ ১৪ হাজার ৫শত টাকা মূল্যমানের ১৪৩ বোতল মারদালাই রাম মদ জব্দ করতে সক্ষম হয়।

তিনি আরো জানান, এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় আইনী কার্যক্রম গ্রহণের জন্য প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।