উখিয়ায় নুরুল হাসেম হত্যা নাকি অাত্নহত্যা?

রফিক মাহমুদ,উখিয়া :

উখিয়া রত্নাপালং কোটবাজার ঝাউতলা নামক এলাকায় এক যুবক প্রেমিকার সাথে অভিমান করে অাত্নহত্যা করেছে। গতকাল ১২ মার্চ রাত ১০টার দিকে এঘটনা ঘটে।

জানা যায়, উখিয়া উপজেলার রত্নাপালং ইউনিয়নের ঝাউতলা এলাকার বজলুর হমানের পুত্র নুরুল হাসেম (২৮) ও পালংখালী ইউনিয়নের বালুখালী পশ্চিম পাড়া এলাকার বাসিন্দা শামশুল অালমের মেয়ে অাকলিমার সাথে দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এক পযার্য়ে প্রেমের সম্পর্ককে বাস্তবতা দিতে তারা কিছুদিন পূর্বে কোটম্যারেজর মাধ্যমে বিয়ে করেছিল দুইজন। হঠাৎ করে দুই জনের মধ্যে বনিবনা না হওয়ায় প্রেমিক নুরুল হাসেম বালুখালীস্থ প্রেমিকার বাড়িতে গিয়ে বিষপানে অাত্নহত্যা করে।

নিহত যুবক উখিয়া উপজেলার রত্নাপালং ইউনিয়নের ঝাউতলা এলাকার বাসিন্দা বজলুর রহমানের পুত্র নুরুল হাসেম (২৮) বলে তার কয়েকজন বন্ধু জানিয়েছেন। মেয়ে অাকলিমা টেকনাফ শামলাপুর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের একটি এনজিওতে কর্মরত অাছে বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

তবে নুরুল হাসেমের পরিবার দাবি করছে তার ছেলেকে হত্যা করার পরে মুখে বিষ ঢেলে দেওয়া হয়েছে। তার মাথায় অাঘাতের ছিহ্ন রয়েছে বলে নিহত যুবকের পিতা বজলুর রহমান অভিযোগ করেন। ময়না তদন্তের রিপোর্ট না পাওয়া পযর্ন্ত ব্যবস্তা নিতে পারছেনা পুলিশ।

এব্যাপারে উখিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ অাবুল খায়েরের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনার সততা স্বীকার করে বলেন, বিষয়টি পুলিশ গভীর ভাবে তদন্ত করছেন। অাসল রহস্য বের করার জন্য অারও তদন্ত করা হচ্ছে।

তিনি অারও বলেন, যুবকটি বিষপানে করলে স্বজনেরা কক্সবাজার হাপতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তারেরা তাকে মৃত ঘোষণা করে। পরে লাশ ময়না তদন্তের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.