মহেশখালীতে সাবেক ছাত্রনেতা ওসমান গণির দিনব্যাপি গণসংযোগ

বার্তা পরিবেশক:
আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কক্সবাজার-২ (মহেশখালী-কুতুবদিয়া) সংসদীয় আসনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের অন্যতম মনোনয়ন প্রত্যাশী ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের সবুজ চত্বরে বেড়ে উঠা ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের এক সময়ের তুখোড় মেধাবী ছাত্রনেতা বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ-সভাপতি ওসমান গণি মহেশখালীর প্রত্যন্ত অঞ্চলে ব্যাপক গণ সংযোগ করেছেন। গত শুক্রবার ০৯-০৩-২০১৮ ইং মহেশখালীর টুঙ্গিপাড়া খ্যাত মাতারবাড়ী ইউনিয়নে দিনব্যাপী বিভিন্ন প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ করেন। মাতারবাড়ীর প্রবেশপথ দক্ষিণ রাজঘাটে গণসংযোগ মধ্য দিয়ে দিনের কর্মসূচী শুরু করেন। সেখান থেকে নতুন বাজার জামে মসজিদে জুমার নামাজ আদায় করেন। জুমার নামাজ পরবর্তী মুসল্লিদের সাথে মতবিনিময় সভায় মিলিত হন।

সমবেত মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে তৃণমুল বান্ধব এ নেতা বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ধর্মের বিষয়ে অত্যন্ত আন্তরিক। তাহাজ্জুদের নামাজ দিয়ে দিনের কার্যক্রম শুরু করা জননেত্রী শেখ হাসিনা সম্প্রতি ১০০১০ জন কওমী আলেমকে সরকারী চাকুরীতে নিয়োগ দিয়ে প্রমাণ করেছেন ধর্মের বিষয়ে তিনি আপোষহীন। উপস্থিত মুসল্লিদের কাছে ধর্ম প্রাণ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুস্থতা ও দীর্ঘায়ু কামানয় দোয়া চেয়েছেন তিনি। সেখান থেকে সিকদার পাড়া গণসংযোগ শেষে নতুন বাজার জামে মসজিদে আসরের নামাজ আদায় করেন। পরবর্তীতে মাতারবাড়ী আজিজিয়া কাসেমুল উলুম মাদ্রাসার ২দিন ব্যাপী আয়োজিত বার্ষিক সভা ও ইসলামী মহা সম্মেলনে প্রথম দিনের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগদান করেন। দিনের শেষ ভাগে নতুন বাজার, সিএনজি ষ্টেশনে গণসংযোগের মধ্য দিয়ে দিনের কর্মসূচীর সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

দিনব্যাপী কর্মসূচীতে অবহেলিত উত্তরাঞ্চলের মাটি ও মানুষের প্রিয়নেতাকে কাছে পেয়ে রাজঘাট থেকে গনসংযোগ যেন জনস্রোতে রূপ নেয়। তৃনমুলের কর্মীবান্ধব উত্তরাঞ্চলের মাটি ও মানুষের শেষ ঠিকানা তাদের প্রিয় নেতাকে বরণ করতে এলাকায় এলাকায় নেমেছে জনতার ঢল।

মাতারবাড়ীবাসী কয়লা বিদ্যুৎসহ সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার তাদের প্রিয়নেতার কাছ থেকে পুর্নবাসনসহ বিভিন্ন বিষয়ে জানতে চাইলে এসময় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার ও এলাকাবাসীর উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার প্রকল্প ধলঘাটা-মাতারবাড়ীকে কেন্দ্র করে বাস্তবায়িত হচ্ছে। তাই আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞ।

সর্বোপরি ধলঘাটা-মাতারবাড়ীর মানুষের জীবন জীবিকার মান উন্নয়ন তথা ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের পূর্ণবাসন, চাকুরী সহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে অতীতেও আমি আপনাদের পাশে ছিলাম। ইনশাল্লাহ ভবিষ্যতেও আপনাদের ন্যায্য দাবী দাওয়া সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ে অবহিত করে সুষ্ঠু সমাধানের চেষ্টা চালিয়ে যাব। তিনি আর ও বলেন ধলঘাটা-মাতারবাড়ীকে সিঙ্গাপুরের আদলে সাজানোর প্রক্রিয়াকে চূড়ান্ত রূপ দিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে তৃতীয় বারের মত ক্ষমতায় আনার জন্য তৃণমুল কর্মী সমর্থকদের জোরলো ভুমিকা পালন করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.