‘জীবন!’ থেকে কি চেয়েছিলেন সাদেক?

শাহেদ মিজান, সিবিএন:
মানুষ নাকি আগে-ভাগেই তার মৃত্যুটা আঁচ করতে পারে! ঘনিয়ে আসা মৃত্যু নামক অলঙ্ঘনীয় দূতটা নাকি তাকে তাড়া করে। তার সত্যো বা যুক্তিটা এখনো অদৃশ্য। তবে কিছু মানুষ মারা যাওয়ার আগে ইঙ্গিত দিয়ে যান। এমন ঘটনা মাঝে মাঝে দেখা যায়। ১৫ মে কক্সবাজার কলেজ সংলগ্ন পাওয়ার হাউস এলাকায় মোটর সাইকেল এবং মিনিবাস মুখোমুখি সংঘর্ষে মারা গেছেন কক্সবাজার কলেজের এমবিএ পরীক্ষার্থী মো. সাদেক। তার মৃত্যুটা সত্যিকার অর্থে বড়ই অস্বাভাবিক। আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধব কেউ মৃত্যুটা মেনে নিতে পারছেন না। তার চেয়ে অস্বাভাবিক ও অলৌকিক হয়ে ধরা দিয়েছে সাদেকের শেষ ফেসবুক স্ট্যাটাসটি। শুধু ‘জীবন! শব্দটিই ছিলো পুরো স্ট্যাটাস। মৃত্যুর ১৭ ঘন্টা আগে এই স্ট্যাটাসটি দেন তিনি। তার স্ট্যাটাসটি নিয়ে তার পরিচিতজনরা আশ্চর্য্য হয়েছেন। ‘জীবন!’ লিখে কি বলতে চেয়েছিলেন সাদেক? বা জীবন থেকে কী চেয়েছিলেন? আসলে তিনি কি ধেয়ে আসা মৃত্যুকে দেখেছিলেন? এই সুন্দর জীবনকে বিদায় জানাতে হবে, তাই হয়তো আপসোস হয়েছিল তার। এরকম অনেক  প্রশ্ন গুলো সকলের মনে ঘুরপাক খাচ্ছে। তার ওই স্ট্যাটাস ঘিরে অনেকে নানা কমেন্ট করছে।

জানা গেছে, কক্সবাজারে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে বন্ধু থেকে নেওয়া মোটর সাইকেল যোগে যাওয়ার পথে কক্সবাজারের পাওয়ার হাউস নামক স্থানে মিনি বাসের (ষ্পেশাল সার্ভিস চট্টমেট্টো-জ-১১-২৮২৬) সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে। এসময় স্থানীয়রা দ্রুত উদ্ধার করে কক্সবাজার হাসপাতালে ভর্তি করান। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে চমেক হাসপাতালে নেওয়ার পথে দুপুর দেড়টার দিকে সে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন সাদেক। নিহত কক্সবাজার সরকারি কলেজের এমবিএ (একাউন্টিং) শেষ বর্ষের পরীক্ষার্থী ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.